আপনার নিজের ভোটার আইডি কার্ড চেক বা NID Card Check করার মাধ্যমে ভোটার আইডি কার্ড হয়েছে কিনা জানতে পারবেন এবং ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করতে পারবেন। তেমনি, অন্য কারও ভোটার আইডি কার্ডের নাম্বার এবং জন্ম তারিখ দিয়ে তার তথ্য বের করতে পারবেন।

অনেকেই নতুন ভোটার হয়েছেন, বায়োমেট্রিক তথ্য দিয়েছেন কিন্তু এখনো ভোটার হওয়ার এসএমএস পাননি। আপনিও যদি ভোটার হওয়ার এসএমএস না পেয়ে থাকেন, বা এসএমএস পাওয়ার পর আপনার ভোটার আইডি কার্ড হয়েছে কিনা চেক করতে চান, তাহলে পোস্টটি আপনার জন্যই।

আজ আমি আপনাদের সাথে শেয়ার করবো, কীভাবে আপনি নিজের নতুন ভোটার আইডি কার্ড চেক করবেন এবং চাইলে অন্য কারও ভোটার আইডি চেক করার মাধ্যমে তার তথ্য বের করতে পারবেন।

ভোটার আইডি কার্ড চেক

ভোটার আইডি কার্ড চেক করার দুইটি ধরণ রয়েছে। একটি হচ্ছে ফরম নাম্বার বা ভোটার স্লিপ নাম্বার দিয়ে নিজের ভোটার আইডি কার্ড হয়েছে কিনা চেক করা। অপরটি হচ্ছে অন্য একজন ব্যক্তির এনআইডি কার্ডের নাম্বার এবং জন্ম তারিখ দিয়ে তার তথ্য চেক করা।

প্রয়োজনে যেমন নিজের আইডি কার্ড হয়েছে কিনা চেক করার প্রয়োজন পড়ে, ঠিক তেমনি অন্য কোনো ব্যক্তির এনআইডি কার্ডের তথ্য যাচাই করার জন্যই Voter ID Card Check 2024 করার প্রয়োজন পড়ে। তো চলুন, এই দুইটি বিষয় নিয়েই আজ বিস্তারিত জেনে নেয়া যাক।

ফরম নাম্বার দিয়ে নতুন ভোটার আইডি কার্ড চেক

ফরম নাম্বার দিয়ে নতুন ভোটার আইডি কার্ড চেক করার জন্য প্রথমেই Services nidw gov bd ওয়েবসাইট ভিজিট করুন। এরপর, রেজিস্টার করুন বাটনে ক্লিক করে জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর / ফরম নম্বর, জন্ম তারিখ লিখুন এবং ক্যাপচা কোড পূরণ করে সাবমিট করুন। এরপর, ঠিকানা, মোবাইল নাম্বার ও ফেস ভেরিফিকেশন সম্পন্ন করে আইডি কার্ড চেক করতে পারবেন।

ভোটার আইডি চেক
ভোটার আইডি চেক

নতুন এনআইডি কার্ড চেক করার নিম্নোক্ত ধাপগুলো অনুসরণ করুন —

  • প্রথমে ভিজিট করুন https://services.nidw.gov.bd/nid-pub/claim-account ওয়েবসাইট।
  • এরপর, ফরম নম্বর এবং জন্ম তারিখ লিখুন। NIDFN লিখুন এবং স্পেস ছাড়া ফরম নাম্বার লিখুন উদা: NIDFN123456789 ।
  • ক্যাপচা কোড পূরণ করুন এবং সাবমিট বাটনে ক্লিক করুন।
  • স্থায়ী ও বর্তমান ঠিকানা নির্বাচন করে মোবাইল নাম্বার ভেরিফিকেশন সম্পন্ন করুন।
  • এখন, NID Wallet অ্যাপ দিয়ে ফেস ভেরিফিকেশন সম্পন্ন করুন ও একাউন্টের পাসওয়ার্ড সেট করুন।
  • এরপর, আপনার NID Card Check 2024 করতে পারবেন এবং চাইলে ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করতে পারবেন।

উপরোক্ত ধাপগুলো অনুসরণ করার মাধ্যমে অনেক সহজেই ফরম নাম্বার দিয়ে নতুন ভোটার আইডি কার্ড চেক করতে পারবেন এবং ভোটার আইডি কার্ড হয়েছে কিনা যাচাই করতে পারবেন। এছাড়াও, আপনি চাইলে ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করতে পারবেন। (জাতীয় পরিচয় পত্র ডাউনলোড করতে এনআইডি কার্ড ডাউনলোড করার সম্পূর্ণ পদ্ধতি ছবিসহ পোস্টটি চেক করতে পারেন।)

আরও পড়ুন —

ভোটার আইডি কার্ড চেক ২০২৪

ভোটার আইডি কার্ড চেক করার জন্য services.nidw.gov.bd ওয়েবসাইট ভিজিট করুন এবং রেজিস্ট্রেশন করুন বাটনে ক্লিক করুন। এরপর, জাতীয় পরিচয় পত্র নম্বর / NIDFN লিখে ফরম নাম্বার লিখুন ও জন্ম তারিখ লিখে ক্যাপচা পূরণ করে সাবমিট করুন। অতঃপর, ঠিকানা নির্বাচন, মোবাইল নাম্বার ভেরিফিকেশন ও পাসওয়ার্ড সেট করে সহজেই NID Card Check করতে পারবেন।

এই পদ্ধতিটি অনুসরণ করার মাধ্যমে আপনার নতুন এনআইডি কার্ড চেক ২০২৪ করতে পারবেন অনেক সহজেই।

Telegram ChannelJoin Telegram
Facebook PageFollow on Facebook

পুরাতন আইডি কার্ড চেক

পুরাতন এনআইডি কার্ড চেক করার জন্য services nidw gov bd ওয়েবসাইট ভিজিট করতে হবে। এরপর, আইডি নাম্বার/ফরম নাম্বার, জন্ম তারিখ ও ক্যাপচা পূরণ করে সাবমিট করতে হবে। অতঃপর, স্থায়ী ও বর্তমান ঠিকানা নির্বাচন করে মোবাইল ভেরিফিকেশন ও ফেস ভেরিফিকেশন সম্পন্ন করতে হবে। এরপর, একাউন্টের পাসওয়ার্ড সেট করার পর NID Check করতে পারবেন।

এই পদ্ধতিতে যেকোনো পুরাতন ভোটার আইডি চেক করতে পারবেন। একইভাবে নতুন ভোটার আইডি চেক করতে পারবেন। NID Card Download করতে চাইলে ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করার বিস্তারিত পোস্টটি পড়তে পারেন।

SMS এর মাধ্যমে নতুন ভোটার আইডি চেক

SMS এর মাধ্যমে ভোটার আইডি চেক করার জন্য ম্যাসেজ অপশনে গিয়ে NID<স্পেস>Form Number<স্পেস>DD-MM-YYYY লিখে 105 নাম্বারে Send করুন। ফিরতি ম্যাসেজে আপনার ভোটার আইডি প্রস্তুত হয়ে থাকলে NID Number সহ জানিয়ে দেয়া হবে।

NID Number Check SMS
NID Number Check SMS

সাধারণত ভোটার নিবন্ধন করার পর বায়োমেট্রিক তথ্য প্রদান করার পর এসএমএস এর মাধ্যমে এনআইডি কার্ডের নাম্বার সহ জানিয়ে দেয়া হয়। কিন্তু, ভোটার হওয়ার কয়েক মাস পরেও অনেকেই এসএমএস পান না। তারা চাইলে এই পদ্ধতি অনুসরণ করে আইডি কার্ডের নাম্বার জেনে নিতে পারবেন। এরপর, ভোটার আইডি কার্ডের অনলাইন কপি ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

NID Number Check SMS Format

NID<Space>FORM NO<Space>DD-MM-YYYY এই ফরম্যাটে ম্যাসেজ লিখে ম্যাসেজটি 105 নাম্বারে সেন্ড করে দিন। ফিরতি এসএমএস এর মাধ্যমে আপনার জাতীয় পরিচয়পত্রের নাম্বার পাঠিয়ে দেয়া হবে।

মোবাইল দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড চেক

মোবাইল দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড চেক করার জন্য services.nidw.gov.bd ওয়েবসাইট ভিজিট করতে হবে এবং রেজিস্টার করুন বাটনে কিক করে জাতীয় পরিচয় পত্র/ফরম নাম্বার, জন্ম তারিখ ও ক্যাপচা পূরণ করে সাবমিট করতে হবে। এরপর, স্থায়ী ঠিকানা ও বর্তমান ঠিকানা নির্বাচন করে মোবাইল নাম্বার ভেরিফিকেশন করতে হবে। অতঃপর, ফেস ভেরিফিকেশন সম্পন্ন করে একাউন্টের পাসওয়ার্ড সেট করার পর মোবাইল দিয়ে NID Card Check করতে পারবেন এবং ডাউনলোড করতে পারবেন।

এই পদ্ধতিতে নতুন এবং পুরাতন ভোটার আইডি চেক করা যাবে। আপনার পুরাতন ভোটার আইডি কার্ড হলে জাতীয় পরিচয় পত্র নাম্বার বা ফরম নাম্বার যেকোনো একটি দিয়ে চেক করতে এবং ডাউনলোড করতে পারবেন। তবে, নতুন ভোটার আইডি কার্ডের ক্ষেত্রে ফরম নাম্বার দিয়ে চেক করতে হয়। (ভোটার আইডি নাম্বার জানা থাকলে যেকোনো একটি দিয়ে চেক করা যায়।)

এই ছিলো নতুন এবং পুরাতন এনআইডি কার্ড চেক করার পদ্ধতি। আপনি যদি অন্য কারও ভোটার আইডি কার্ড যাচাই করতে চান, তাহলে নিচের তথ্যগুলো পড়তে পারেন। না চাইলে পোস্টটি এখানেই শেষ করতে পারেন।

NID Card Online Check

NID Card Online Check করার জন্য https://services.nidw.gov.bd/nid-pub/claim-account লিংকে ভিজিট করতে হবে। ভোটার স্লিপ নাম্বার বা ভোটার আইডি কার্ডের নাম্বার এবং জন্ম তারিখ লিখতে হবে। এরপর, ক্যাপচা পূরণ করে সাবমিট করতে হবে। অতঃপর, ঠিকানা, মোবাইল এবং ফেস ভেরিফিকেশন সম্পন্ন করলে এনআইডি কার্ড চেক করা যাবে।

এই পদ্ধতি ব্যবহার করে ভোটার আইডি কার্ড যাচাই করার মাধ্যমে আপনার ভোটার আইডি কার্ড হয়েছে কিনা জানতে পারবেন। ভোটার আইডি কার্ড সংগ্রহ করতে চাইলে ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করার পদ্ধতি পোস্টটি অনুসরণ করুন। এখানে বিস্তারিত পদ্ধতি উল্লেখ করে দেয়া হয়েছে।

ভোটার আইডি কার্ড যাচাই করার নিয়ম

ভোটার আইডি কার্ড যাচাই করতে চাইলে গুগল প্লে ষ্টোর থেকে Online GD অ্যাপটি ইনস্টল করে নিন। এরপর, “নিবন্ধন” অপশনে গিয়ে NID Number ও জন্ম তারিখ দিয়ে উক্ত ভোটার আইডি কার্ডের অন্যান্য তথ্য যাচাই করতে পারবেন। এর মাধ্যমে, যেকোনো ব্যক্তির এনআইডি কার্ডের তথ্য সঠিক কিনা যাচাই করা সম্ভব।

ভোটার আইডি কার্ড যাচাই
ভোটার আইডি কার্ড যাচাই

জাতীয় পরিচয়পত্রের তথ্য যাচাইয়ের জন্য নির্বাচন কমিশন একটি সফটওয়্যার তৈরি করেছে। পুলিশ, গোয়েন্দা সংস্থা, ব্যাংক, বীমা প্রতিষ্ঠান এবং অন্যান্য প্রতিষ্ঠান এই সফটওয়্যার ব্যবহার করে NID-এর সত্যতা যাচাই করতে পারবে। এই সফটওয়্যার ব্যবহার করার জন্য প্রতিষ্ঠানগুলোকে porichoy.gov.bd ওয়েবসাইট থেকে আবেদন করতে হবে এবং নির্ধারিত ফি দিয়ে প্যাকেজ কিনতে হবে।

তবে, আপনি Online GD অ্যাপ দিয়ে ফ্রিতেই এনআইডি নাম্বার ও জন্ম তারিখ দিয়ে উক্ত ব্যক্তির বিভিন্ন তথ্য যাচাই করতে পারবেন। এছাড়াও, নিচে জাতীয় পরিচয় পত্র যাচাই করার আরও একটি পদ্ধতি শেয়ার করেছি।

জাতীয় পরিচয় পত্র যাচাই করার নিয়ম

জাতীয় পরিচয় পত্র যাচাই করার জন্য প্রথমেই ভিজিট করুন ldtax.gov.bd ওয়েবসাইট। এরপর, নাগরিক কর্নার লেখার উপর ক্লিক করে মোবাইল নাম্বার ও ক্যাপচা পূরণ করে পরবর্তী ধাপে মোবাইল নাম্বার ভেরিফাই করে নিন। অতঃপর, একাউন্টে লগইন করে জাতীয় পরিচয় পত্রের নাম্বার দিয়ে বিভিন্ন তথ্য যাচাই করতে পারবেন।

জাতীয় পরিচয় পত্র যাচাই
জাতীয় পরিচয় পত্র যাচাই

পূর্বে ছবিসহ এনআইডি কার্ড যাচাই করার সুযোগ থাকলেও এখন শুধুমাত্র নাম, পিতা-মাতার নাম ও ঠিকানা যাচাই করা যায়। নিচে এনআইডি কার্ড যাচাই করার পদ্ধতিটি ধাপে ধাপে উল্লেখ করে দিয়েছি।

  • প্রথমেই ভিজিট করুন ldtax.gov.bd ওয়েবসাইট।
  • এরপর, নাগরিক কর্নার লেখায় ক্লিক করে মোবাইল নাম্বার ও ক্যাপচা পূরণ করে রেজিস্ট্রেশন করুন।
  • মোবাইলে আসা ওটিপি কোড ভেরিফিকেশন করার পর একাউন্টে লগইন করুন।
  • এখন জাতীয় পরিচয় পত্রের নাম্বার দিয়ে নাম, পিতা-মাতার নাম ও ঠিকানা যাচাই করতে পারবেন।

উপরোক্ত পদ্ধতি দুইটি অনুসরণ করলে সহজেই যেকোনো জাতীয় পরিচয় পত্রের তথ্য যাচাই করতে পারবেন। জাতীয় পরিচয় পত্রে থাকা নাম, পিতা-মাতার নাম ও ঠিকানা সঠিক কিনা যাচাই করার জন্য এই পদ্ধতিটি অনুসরণ করতে পারেন।

FAQ

কিভাবে জাতীয় পরিচয়পত্র যাচাই করব?

জাতীয় পরিচয়পত্র যাচাই করার জন্য services.nidw.gov.bd ওয়েবসাইট ভিজিট করতে হবে। এরপর, রেজিস্ট্রার করুন বাটনে ক্লিক করে ভোটার স্লিপ নাম্বার বা জাতীয় পরিচয় পত্রের নাম্বার, জন্ম তারিখ এবং ক্যাপচা পূরণ করে সাবমিট করার পর ঠিকানা, মোবাইল এবং ফেস ভেরিফিকেশন করলে ভোটার আইডি কার্ড যাচাই করতে পারবেন।

ভোটার আইডি কার্ড তৈরি করতে কি কি লাগে?

ভোটার আইডি কার্ড তৈরি করতে নতুন ভোটার হওয়ার জন্য আবেদন করতে হয়। আবেদন করার সময় প্রয়োজনীয় সকল তথ্য দিতে হবে। এরপর, আবেদন অনুমোদন হলে নতুন ভোটার হতে পারবেন।

জাতীয় পরিচয়পত্র কোথায় যাচাই করব?

জাতীয় পরিচয় পত্র হয়েছে কিনা যাচাই করার জন্য বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন এর ওয়েবসাইট ব্যবহার করুন। জাতীয় পরিচয় পত্র আসল নাকি নকল যাচাই করার জন্য Online GD অ্যাপস অথবা ldtax ওয়েবসাইট ব্যবহার করুন।

জাতীয় পরিচয় পত্র সংক্রান্ত যেকোনো সমস্যা থাকলে অবশ্যই কমেন্ট করুন বা আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন। আমরা আপনাকে যথাসম্ভব সহযোগিতা করার চেষ্টা করবো। এতক্ষণ সময় নিয়ে পোস্টটি সম্পূর্ণ পড়ার জন্য ধন্যবাদ।

ভোটার আইডি কার্ড সম্পর্কে অন্যান্য তথ্য —

হোমপেজNID BD
ক্যাটাগরিNID Card
স্মার্ট কার্ড চেকNID Smart Card Status Check

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *